‘অভিনেতারাও শরীর ব্যবহার করে কাজ পেতে চায়’

[ad_1]

যৌন হেনস্থা নিয়ে সরব পুরো হলিউড-বলিউড ইন্ডাস্ট্রি। হার্ভে উইনস্টাইনের কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর এখন অনেকেই জানেন, নায়িকারা প্রযোজক ও পরিচালকের যৌন লালসার শিকার হন। আবার অনেক অভিনেত্রী আছেন, যারা কাজ পেতে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করতেও দ্বিধা করেন না। কিন্তু এর উল্টো দিকও আছে, যা খোলাসা করলেন টিভি ইন্ডাস্ট্রির প্রভাবশালী প্রযোজক একতা কাপুর।

সম্প্রতি এক টিভি শোতে একতা কাপুর বলেছেন, অনেক সময় অভিনেতারাও কাজ পেতে নিজেদের শরীর ব্যবহার করেন! যৌনতাকে কাজে লাগিয়ে কাজ পেতে চান তারা।

ওই টিভি শোতে তাকে প্রশ্ন করা হয়, বলিউডেও যদি একজন হার্ভে উইনস্টাইন থাকত তাহলে কী হতো? এ ছাড়া MeToo হ্যাসট্যাগ বিনোদন জগতের অভিনেত্রীদেরকে কতটা সাহায্য করছে? এই দুই প্রশ্নের জবাবেই একতা নিজের মত প্রকাশ করেন।

একতা বলেন, ‘আমার মনে হয়, বলিউডেও অনেক হার্ভে উইনস্টাইন রয়েছে। পাশাপাশি আমার মনে হয়, উল্টো দিকও দেখা উচিত। সেদিক থেকে দেখলে হার্ভে উইনস্টাইনের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু মানুষ সেদিকটা নিয়ে কথা বলে না। এ কথা সত্যি যে অনেক প্রযোজকই নিজেদের ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে নবাগতদের যৌন নিগ্রহ করেন। কিন্তু অনেক অভিনেতাও কাজ পেতে ইচ্ছাকৃতভাবে ব্যবহার করেন নিজেদের যৌনতাকে।’ বিষয়টিকে অনেকটা মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠের মতো বলেই মনে করেন একতা।

একতার মতে, এমনটা ভাবা একেবারেই ঠিক নয় যে, ক্ষমতাবানরাই সবসময় ভোগ করবে। আর যার ক্ষমতা নেই সেই শিকার হবে। তিনি নিজেও একজন প্রযোজক। মাঝে-মধ্যে সহকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পারেন অনেক সময় তাদেরও ব্যবহার করা হয়।

একজন প্রযোজক হিসেবে তিনি বিভিন্ন সময় অন্য পুরুষ প্রযোজকদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেছেন। তারা তাকে জানিয়েছেন, কাজের বিনিময়ে যৌনতা বিক্রির খোলাখুলি প্রস্তাব পান তারা। অর্থশালী প্রযোজকই যে সব সময় নবাগতদের ব্যবহার করছেন তা ঠিক নয়। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here