Tuesday, October 19, 2021
Homeআন্তর্জাতিকগাজায় ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে ১৬ ফিলিস্তিনি নিহত

গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে ১৬ ফিলিস্তিনি নিহত

[ad_1]

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে অন্তত ১৬ ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। এসময় এক হাজার ৫০০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা এ খবর জানিয়েছেন।

শুক্রবার ‘ল্যান্ড ডে’ বা ভূমি দিবসের ৪২তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে গাজা-ইসরায়েল সীমান্তে বিক্ষোভে অংশ নেন হাজারো ফিলিস্তিনি। ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের প্রত্যাবাসনের অধিকার এবং ভূমি দিবস উদ্‌যাপনের লক্ষ্যে সীমান্তবর্তী এলাকায় ‘গ্রেট মার্চ অব রিটার্ন’ নামে ছয় সপ্তাহব্যাপী বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ ডাক দেয়া হয়েছে। শুক্রবার এই বিক্ষোভ শুরু হয়। আর শুরুর দিনেই এ হতাহতের ঘটনা ঘটল।

ইসরাইলি সেনারা বলছে, সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর তারা গুলি চালিয়েছে। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এক বৈঠকে সহিংসতার ঘটনা তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে।

বিক্ষোভ সামনে রেখে ইসরায়েলের সঙ্গে সীমান্ত লাগোয়া নিরপেক্ষ অঞ্চলের (বাফার জোন) প্রান্তে পাঁচটি ক্যাম্প তৈরি করেছেন ফিলিস্তিনিরা। ইসরাইলের দখলে থাকা এলাকায় শরণার্থীদের ফিরতে বাধা দেয়ার প্রতিবাদে এ বিক্ষোভের ডাক দেয়া হয়েছে।

ইসরাইলি সেনাবাহিনী বলছে, গাজা-ইসরাইল সীমান্তের কাছে পাঁচটি জাযগায় প্রায় ১৭ হাজার মানুষ অবস্থান নিয়েছে। তারা সেখানে গাড়ির টায়ারে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে এবং সীমান্তের প্রাচীরের দিকে মলোটভ ককটেল ছুঁড়ছে।

filii

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, নিহতদের মধ্যে ১৬ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিনি কিশোরও রয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ কিদরা জানান, খান ইউনুস, জাবালিয়া, রাফা ও শুজাইয়া শহরে এসব ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে প্রায় এক হাজার ৫০০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছে, যার মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

এদিকে, গাজা সীমান্তে অবস্থান নেয়া লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করতে ইসরাইলি সেনারা ড্রোন থেকে টিয়ারগ্যাস ছোঁড়ে। এতে কয়েকজন আহত হয়েছে।

ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাস এই সহিংসতার জন্য ইসরাইলকে দায়ী করেছে। হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়েহ বলেছেন, তারা এক ইঞ্চি ফিলিস্তিনি জমিও ইসরাইলের কাছে ছাড়বেন না। ফিলিস্তিনের কোনো বিকল্প নেই এবং আমাদের ফিরে যাওয়ার অধিকার ছাড়া এই সংকটের কোনো সমাধান নেই।

গাজা-ইসরাইল সীমান্তে সব সময় ইসরাইলের কড়া সামরিক পাহারা থাকে। সেখানে ইসরাইল তাদের সামরিক উপস্থিতি আরো বাড়িয়েছে।

ফিলিস্তিনিরা প্রতি বছরের ৩০ মার্চকে ‘ভূমি দিবস’ হিসেবে পালন করে। ১৯৭৬ সালের এই দিনে ফিলিস্তিনিরা তাদের জমি দখলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ করার সময় ইসরাইলি সৈন্যদের গুলিতে ছয়জন নিহত হয়।

ছ’সপ্তাহ ব্যাপী এই বিক্ষোভ শেষ হবে আগামী ১৫ মে, এই দিনটিকে ফিলিস্তিনিরা ‘নাকবা’ বা বিপর্যয় দিবস হিসেবে পালন করে। ১৯৪৮ সালের ওই দিনে লাখ লাখ ফিলিস্তিনি তাদের বাড়িঘর ফেলে চলে আসতে বাধ্য হয়েছিল ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পর। সূত্র: বিবিসি

[ad_2]

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments