Friday, October 22, 2021
Homeখবরজাতীয় জাদুঘরে শিল্পী ফরহাদ আজিজ এর একক গীটার বাদন

জাতীয় জাদুঘরে শিল্পী ফরহাদ আজিজ এর একক গীটার বাদন

[ad_1]

বাংলাদেশ হাওয়াইয়ান গীটার শিল্পী পরিষদের উদ্যোগে শিল্পী ফরহাদ আজিজ এর একক গীটার বাদন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর এর কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এ গীটার বাদন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুরুতেই শিল্পীর বাজানো “আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী, আমি কি ভুলিতে পারি” ব্যাক গ্রাউন্ড মিউজিকের সাথে প্রধান অতিথি বিশিষ্ট সুরকার ও শিল্পী রুবাইয়াত শামীম চৌধুরী, উপ আঞ্চলিক পরিচালক, বাংলাদেশ বেতার, ঢাকা ভাষা শহীদদের প্রতি ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদর্শন করে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন।

শুরুতেই শিল্পীর দুজন গীটার গুরুকে উত্তরীয় পরিয়ে গুরু সম্মাননা জানান শিল্পী নিজে এবং তাঁদের শাল উপহার দেন।
স্বাগত বক্তব্যে উক্ত পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জনাব কবির আহমেদ বলেন, সুরের ছোঁয়া প্রাণবন্ত করবে সবার হৃদয়। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অত্র পরিষদের গীটার বাদন স্থান করে নেয়ায় পরিষদের সাংগঠনিক দৃঢ়তার প্রশংসা করেন ও সকল সদস্যকে এভাবে কথায় নয় কাজে পরিচয় দেয়ার জন্য আহবান জানান।

পরিষদের সভাপতি রেহানা মতলুব আশা প্রকাশ করেন এভাবে হাওয়াইয়ান গীটারের চর্চা পুরানো ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হবে। গীটার গুরু ডাঃ জাফর আলী চৌধুরী আশা প্রকাশ করেন শিল্পী তাঁর ছাত্র হিসাবে আরো উজ্জ্বল গীটার তারকা হবেন এবং গুরু ভক্তির জন্য ধন্যবাদ জানান।

শিল্পী ফরহাদ আজিজ তাঁর অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে আবেগতাড়িত হয়ে দুজন গীটার গুরু ডাঃ জাফর আলী চৌধুরী ও হাসানুর রহমান বাচ্চুর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ হাওয়াইয়ান গীটার শিল্পী পরিষদ তাঁকে নিয়ে মোট ৬ জন শিল্পীর একক পরিবেশনা সম্পন্ন করে সাংগঠনিক দৃঢ়তা প্রদর্শন করতে সক্ষম হয়েছে। গীটার গুরু হাসানুর রহমান বাচ্চু’র প্রেরণাতেই শিল্পী এতো বড় একটি আসরে বাজানোর সাহস পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেন।

বিশেষ অতিথি মোঃ ফজলুর রহমান, স্বত্তাধিকারী, দর্জি বাড়ি ও বাফা সম্পাদক বলেন, রবীন্দ্র, নজরুল ও আধুনিক গানে গীটার অত্যধিক জনপ্রিয় একটি বাদ্যযন্ত্র। শিল্পীর বাদন পূর্বেও তিনি শুনেছেন, অত্যন্ত হৃদয়গ্রাহী ও তাঁর উত্তোরত্তোর সাফল্য কামনা করেন।

বাংলাদেশ হাওয়াইয়ান গীটার শিল্পী পরিষদের নির্বাহী সভাপতি জনাব হাসানুর রহমান বাচ্চু গীটারকে জনপ্রিয় করার জন্য এ ধরণের আরো একক ও সমবেত আয়োজনকে স্বাগত জানান। গুরু সম্মাননা হিসাবে উত্তরীয় পরিয়ে এবং শাল উপহারের জন্য শিল্পীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
গীটার বাদন পর্ব শুরু হলে শিল্পী ফরহাদ আজিজ ভাষার গান “আমায় গেঁথে দাওনা মাগো একটা পলাশ ফুলের মালা” দিয়ে শুরু করেন। এরপর বধু কোন আলো, এই রাঙামাটির পথে লো এবং জনপ্রিয় আধুনিক গানসহ মোট ১৭টি গান পরিবেশন করেন।

উপস্থিত শ্রোতারা মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে গীটার বাদন উপভোগ করেন ও সুন্দর অনুষ্ঠানের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। “এই রাঙা মাটির পথে লো এবং আকাশে বাতাসে চল সাথি উড়ে যাই চল” গান দুটির সাথে নৃত্য পরিবেশন করেন সানজিদা খানম।

উল্লেখ্য শিল্পী ফরহাদ আজিজ পেশাগত জীবনে স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু ইনস্টিটিউশন ও কলেজের অধ্যক্ষ ও বাংলাদেশ বেতারের একজন নিয়মিত গীটার শিল্পী।

শিল্পী ফরহাদ আজিজ
গীটার শুরুর ইতিহাস ও পারিবারিক পরিচিতি:

ছোটবেলা থেকে সংগীতের প্রতি দুর্বার আকাংখা থাকলেও বিভিন্ন কারণে চর্চা করার সুযোগ হয় অনেক বড় হয়ে। অর্থনীতি বিষয়ে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ে অনার্স পড়ার ফাঁকে রুমমেট খায়রুল ১৯৮৮ সালে ৪০০ টাকা দিয়ে একটি উডেন হাওয়াইয়ান গীটার ক্রয় করে এবং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে থাকে। এক মাস না যেতেই সে হাল ছেঁড়ে দেয়, বিক্রি করে দিবে। শিল্পী রুমে তার অবর্তমানে ঐ গীটার বাজাতেন, তাই চিন্তায় পড়ে গেলেন। ২৫০ টাকা দাম উঠলো, তিনি বললেন, “বন্ধু আমাকেই দিয়ে দাও আমি তিন মাসে পরিশোধ করে দিব”। অত:পর রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় মেডিক্যাল এর চিকিৎসক ডা: জাফর আলী চৌধুরী’র গীটার প্রশিক্ষণ একাডেমী “গীতাঞ্জলী”-তে ভর্তি হয়ে নিয়মিত তালিম নেয়া শুরু করেন। তিনি ১৯৭২ সাল থেকে গীটার বাজান। অত্যন্ত দক্ষ এই গীটারগুরু রাজশাহী বেতারের বিশেষ শ্রেণীর গীটার বাদক এবং পেশাগত জীবনে এমবিবিএস ডাক্তার। ১৯৯৩ সালে মাস্টার্স সম্পন্ন হলে শিল্পী ফরহাদ আজিজ ঢাকা চলে আসেন এবং বুলবুল একাডেমী অব ফাইন আর্টস, বাফা’তে ভর্তি হন।

১৯৯৩ সালে “গীটার গুরু” মোঃ হাসানুর রহমান বাচ্চু স্যারের গীটার বাদন শিল্পীকে মুগ্ধ করলে তাঁর বাসায় যেয়ে ব্যক্তিগতভাবে লেসন নেয়া শুরু করেন। গীটার বাজানোর বিভিন্ন টেকনিক, বাদন স্টাইল, নিরহংকার কথাবার্তা ও বন্ধু সুলভ ছাত্রত্ব এ সময় শিল্পীকে জাগ্রত করে তুলে এবং তাঁর নির্দেশনায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাজিয়ে শিল্পী সফলতা লাভ করেন। ২০০২ সালে শিল্পীর প্রথম গীটার এলবাম বের হয় “একদিন স্বপ্নের দিন” শিরোনামে, সংগীত কম্পোজিশন করেন হাসানুর রহমান বাচ্চু। হাওয়াইয়ান গীটারের দুঃসময়ে প্রখ্যাত গীটার বাদক রেহানা মতলুব তাঁর বাসায় নিয়মিত ঘরোয়া আসরে গীটারের প্রোগ্রাম করে আমার মত অনেক গীটারিস্টকে নিয়মিত বাদনে মনোনিবেশিত করান।
ফরহাদ আজিজ ২০০৪ সালে বাংলাদেশ বেতারে এনলিস্টেড হয়ে নিয়মিত অনুষ্ঠান করে আসছেন। বিটিভি ও চ্যানেল আই এ শিল্পীর বেশ কয়েকটি গান প্রচারিত হয়েছে। দেশের গানের একটি সিডি বের করছেন তিনি খুব শীঘ্রই।

বাংলাদেশ হাওয়াইয়ান গীটার শিল্পী পরিষদের সহকারি সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন ১৯৯৯ সাল থেকে। ২০১৭ সালে নারায়ণগঞ্জ হাওয়াইয়ান গীটার পরিষদের সম্মেলন শেষে তাঁকে সাধারণ সম্পাদক এর দায়িত্ব দেয়া হয়।
পৈত্রিক নিবাস কুমিল্লা জেলা, হোমনা থানা, তুলাতুলি শিবনগর গ্রামে। বাবা ডাঃ আব্দুল আজিজ প্রথমে মেডিক্যাল অফিসার ও পরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার -এর চাকুরীর সুবাদে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় বিচরণ। বর্তমানে সানারপাড়, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ এ স্থায়ীভাবে বসবাস। তিন ভাই-দুই বোন। মমতাময়ী মা রাজিয়া আজিজ সকলকে আগলে রেখেছেন, বড় ভাই ফারুক আজিজ স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, মেঝ ভাই ফরিদ আজিজ পরিকল্পনা মন্ত্রী মহোদয়ের একান্ত সচিব ও জয়েন্ট চিফ, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, ফরহাদ আজিজ, অধ্যক্ষ, স্যার জগদীশচন্দ্র বসু ইনস্টিটিউশন ও কলেজ, রাঢ়ীখাল, শ্রীনগর, মুন্সীগঞ্জ।

[ad_2]

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments