ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা স্বাস্ব্য কমপ্লেক্সে ক্লিনজিং কাজে টিএইচ এর বাধা

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি :

0
55

রাণীশংকৈল উপজেলা স্বাস্ব্য কমপ্লেক্সের ময়লা আর্বজনার কারনে পরিবেশ ও স্বাস্ব্য ঝুঁকিতে রয়েছে। হাসপাতালের প্রতিটি জায়গায় ময়লা আবর্জনার স্তূপ। যা দেখে সাইকেল যোগে সারা বাংলাদেশ ভ্রমণকারী আহসান হাবিবের আহবানে কয়েক জন সচেতন ব্যক্তির উদ্যোগে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় এসব ময়লা পরিস্কার পরিচছন্নতার ব্যাপারে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনায় বসেন। পরে টিএইচ আঃ জব্বার পরিস্কার না করার কথা জানিয়ে দেন।

উপজেলা স্বাস্ব্য কমপ্লেক্সের যন্ত্রপাতী ময়লা আর্বজনায় স্বাস্ব্য ঝুৃঁকিতে পরিণত হয়েছে। পায়খানায় ময়লা কাপড়, নোংরা কাগজ, বেসিনে মাথা ন্যাডানো গোছা গোছা চুল, রোগীদের থাকার ঘর ও আশ পাশে ময়লা আর্বজনা কাগজ, দেওয়ালের গায়ে পানের পিক, সহ অস্বাস্ব্যকর পরিবেশ বিরাজ করছে গোটা হাসপাতাল এলাকায়।

কয়েক জায়গায় পায়খানায় ট্যাংকির ঢাকনা না থাকায় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে , মশার বংশ বৃদ্ধি সহ নানা রোগের সৃষ্টি হচ্ছে যা জীবনের ঝুঁকি বয়ে আনছে প্রতিনিয়ত। এসব ময়লা আবর্জনা একদিকে যেমন পরিবেশ নষ্ট করছে অপরদিকে রোগ জীবানু ছড়াচ্ছে। হাসপাতালটি পুরোটায় স্বাস্ব্য ঝুঁকিতে পরিণত হয়েছে।

কোন ধরনের সহযোগিতা না পেয়ে অবশেষে হাসপাতাল পরিস্কার পরিছন্নতার ব্যাপারে অনুমতি চাওয়া হলে উপজেলা স্বাস্ব্য কমপ্লেক্স ও পঃ পঃ কর্মকর্তা আঃ জব্বার বলেন, প্রতিষ্ঠান আমার আমি যদি আপনাদের ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করতে না দেয় তাহলে আপনারা কেন করবেন, কিভাবে করবেন ?

হাসপাতাল পরিস্কার পরিচছন্নতার ব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন খায়রুল কবিরের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে কাজে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

অপরদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী আফরিদার সাথে কথা হলে তিনি বলেন টিএইচ সাহেব আমাকে বলেছেন হাসপাতাল পরিস্কার করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here