তাস খেলা বন্ধে গ্রামবাসীর অভিনব উদ্যোগ: দোয়ার আয়োজনে তাস খেলা ছেড়ে দেয়ার অঙ্গিকার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

0
574

সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী উপজেলার ঘোরজান ইউনিয়নের প্রত্যন্ত চর অঞ্চল দক্ষিন-বরংগাইল গ্রাম। গ্রামের মধ্যখানে কালভার্টের সামনে বিগত ৫ থেকে ৬ বছর হলো উন্মুক্ত স্থানে রাস্তার পাশে তাস খেলা চলে আসতে ছিল। জায়গাটি কোলাহল পূর্ন হওয়ায় গ্রামের সকল মানুষের যাতায়াত ছিলো। কিন্তু গ্রামের কিছু লোকের উন্মুক্ত কোলাহল পূর্ন স্থানে তাস খেলার কারনে গ্রামের মধ্যে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা তৈরি হয়ে আসছিলো।
গ্রামবাসীর উদ্যোগে গত ১৭ই মে, ২০২১ সোমবার বিকাল ৫ ঘটিকায় রাসেলের দোকানের সামনে একটি আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।
উক্ত সভায় গ্রামের আলেম ওলামা, মুরব্বিয়ানে কেরাম, শিক্ষকবৃন্দ এবং যুবক সমাজ তাস খেলা বন্ধে বক্তব্য রাখেন। তাস খেলা বন্ধে মাওলানা মুফতী আব্দুল আলিম সাহেব কোরআন হাদিস থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য পেশ করেনঃ-

যে খেলা শারীরিক ব্যায়াম তথা স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য অথবা কোন ধর্মীয় বা পার্থিব উপকারিতা লাভের উদ্দেশ্যে অথবা কমপক্ষে মানসিক অবসাদ দূর করার লক্ষ হয় সে খেলা শরীয়ত অনুমোদন করে যদি তাতে বাড়াবাড়ি করা না হয়, শরীয়তের কোন হুকুম লংঘন করা না হয় এবং তাতে ব্যস্ত থাকার কারনে প্রয়োজনীয় কাজকর্ম বিঘ্নিত না হয়। পক্ষান্তরে যে খেলার কোন ধর্মীয় বা পার্থিব উপকারিতা নেই কিংবা যে খেলা শরীয়তের বিধান লংঘন হয় বা যাতে মত্ত হয়ে নামাজ রোজা ইত্যাদি ফরজ কর্ম বিঘ্নিত হয় অথবা জুয়ার ভিত্তিতে হার-জিতে যে সকল খেলা হয়ে থাকে সে গুলো শরিয়তে নিষিদ্ধ, কতক পরিস্কার হারাম আর কতক নিষিদ্ধ।
খেলাধূলা করা ও দেখার বদ অভ্যাসে যারা অভ্যস্ত তাদের এই বদ অভ্যাস পরিত্যাগের জন্য নিম্নোক্ত পন্থা সমূহ গ্রহণ করতে বলা হয়।

১) মনে চাইলেও ইচ্ছাকৃত তা থেকে বিরত থাকতে হবে।
২) খেলাধুলার আলোচনা করা ও আলোচনা শোনা থেকে বিরত থাকতে হবে।
৩) খেলাধুলার উপকরন ও পরিবেশ থেকে দূরে থাকতে হবে। কিছুদিন এরূপ করলে মন থেকে খেলাধূলার আকর্ষন হ্রাস পেতে থাকবে।

*** তাস খেলায় যদি টাকাপয়সার হার জিত শর্ত থাকে তাহলে হারাম। এরুপ শর্ত না থাকলেও তাতে কোন ধর্মগত বা স্বাস্থ্যগত উপকারীতা না থাকায় এবং সময় অপচয় হওয়ায় উহা নিষিদ্ধ।

উক্ত আলোচনা সভায় যারা খেলাধুলার সাথে জড়িত ছিলো তারা খেলা ছেড়ে দিবেন বলে সবার সামনে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন।

উক্তগ্রামের কৃতি সন্তান সাবেক ডাকসু সদস্য ( ডঃ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ্ হল ছাত্র সংসদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ) মোঃ সাইফুল ইসলাম ইসলাম মনে করেন চরাঞ্চলে উন্মুক্ত স্থানে টাকার বিনিময়ে তাস খেলা বন্ধে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যাক্তিবর্গ এবং চৌহালী উপজেলা প্রশাসনের আরো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা উচিত।

আলোচনা শেষে তাস খেলোয়াড়দের হেদায়েতের জন্য এবং গ্রামের সামাজিক সম্প্রিতি উন্নয়নের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া প্রাথনা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here