দিল্লিতে স্ত্রীকে খুন করে বাক্সে ১১দিন!

[ad_1]

ভারতের দিল্লিতে সুরেশ সিং নামে এক যুবক তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যা করে ১১ দিন ধরে মরদেহ বিছানার বাক্সে লুকিয়ে রেখেছিল। তবে পুলিশের হাত থেকে তার শেষরক্ষা হয়নি। পরে পুলিশ হাতে আটক হয় ওই যুবক। দিল্লির দক্ষিণ-পূর্ব তুঘলাকাবাদের এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, সুরেশ সিং প্রথমে লতা সিং নামে এক নারীকে বিয়ে করে। পরে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হওয়া মারিয়া মাসিহ ওরফে সাবিদ্যার মেহরা নামে এক নারীকে বিয়ে করেন তিনি।

কিন্তু দ্বিতীয় বিয়ের কথা প্রথম স্ত্রী জানার পর মারিয়াকে ত্যাগ করতে সুরেশকে চাপ দিতে থাকে লতা। অন্যদিকে খ্রিস্টান ধর্ম ত্যাগ করে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করা মারিয়াও সুরেশকে চাপ দিতে থাকে প্রথম স্ত্রীকে ডিভোর্স দেওয়ার জন্য।

সুরেশ পুলিশকে জানায়, সে দুই দিকের চাপ সহ্য করতে না পেরে মারিয়াকে হত্যা করে।

জেলা পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ-পূর্ব) চিন্ময় বিশ্বাস জানান, বৃহস্পতিবার উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বরের সিংহ গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

হত্যার পর সুরেশ নেপালে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিল।

গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সুরেশ বলে, ১১ জানুয়ারি রাতে মারিয়াকে বিছানার বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে সে হত্যা করে। একজন ফিজিওথেরাপিস্ট হিসেবে সে জানতো শীতকালে লাশ পচতে সময় লাগে তাই সে বিছানার বাক্সে তা রেখে পালিয়ে যায়।

সুরেশ জানায়, ২০১২ সালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় মারিয়ার সাথে। ২০১৩ সালে তারা এক সাথে থাকতে শুরু করে। তবে সুরেশের দ্বিতীয় বিয়ে সম্পর্কে কিছুই জানতো না তার পরিবার।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here