বিটিভির গৌরব ফেরাতে পরিকল্পনা নিলেন তারানা

0
167


বর্তমানে স্যাটেলাইট চ্যানেলের ভিড়ে বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) সোনালি যুগ ফিকে হলেও আবার নব্বই দশকের দর্শক প্রিয় বিটিভিকে ফেরাতে চান তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। দেশের মানুষের কাছে বিটিভির আবেদন ফেরাতে সব ঢেলে সাজানোর কাজ শুরু করেছেন তিনি। বিটিভির নিবিড় পরিচর্যা নিশ্চিত করতে সপ্তাহে দু’দিন টেলিভিশন ভবনে অফিস করছেন প্রতিমন্ত্রী।

তথ্যমন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বটি নতুন হলেও ব্যক্তি তারানা হালিমের সঙ্গে বিটিভির পরিচয় নতুন নয়। নতুন মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পর কথোপকথনে তারানা হালিম জানান, আপাতত বিটিভির দর্শক প্রিয়তা ফেরানোকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি।

নব্বই দশকের পর ক্রমেই দেশের দর্শক বিটিভি বিমুখ হয়েছে এই সত্য স্বীকার করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি দায়িত্ব নিয়ে দেখলাম যে আগে বিটিভির যে আবেদন দর্শকদের মাঝে ছিলো সেটা কমে গেছে, দর্শক বিটিভি বিমুখ হয়েছে। তবে এখনো গ্রামে-গঞ্জে বিটিভির যথেষ্ট চাহিদা আছে।

তাই বিটিভির হারানো রূপ ফেরাতে সেট থেকে শুরু করে অনুষ্ঠান, সংবাদ সব কিছুতেই পরিবর্তন আনতে চান তিনি।

বিটিভির পুরোনো আমেজের সঙ্গে নতুন যুগের চাহিদার সংমিশ্রণে নেয়া পদক্ষেপ তুলে ধরে তিনি বলেন, আমি প্রথমে চিন্তা করলাম আমাদের সেটগুলোকে আরও আকর্ষণীয় করতে হবে। সেজন্য প্রতিশ্রুতিশীল গ্রাফিক ডিজাইনারদের আমাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে হবে। আমাদের যারা প্রবীণ আছেন তাদের আইডিয়া অভিজ্ঞতা আছে কিন্তু বয়সের কারণে উদ্যম নিয়ে কাজ করতে পারেন না। তাই বিটিভির অনুষ্ঠান মানোন্নয়ন কমিটি নামে একটি কমিটি গঠন করেছি, যে কমিটিতে নবীন-প্রবীণের সমন্বয় থাকবে।

অনুষ্ঠানের মান নিশ্চিতে কঠোর হচ্ছেন জানিয়ে বলেন, বিটিভির অনুষ্ঠানসূচি ধরে ধরে সংশোধন আনতে আমি নিজে দুই দিন করে অফিস করছি। এখন কোন অনুষ্ঠানের জন্য তদবির চলবে না। মান সম্পন্ন না হলে প্রোগ্রাম বাদ। তদবিরের প্রোগ্রাম বন্ধ। যেসব প্রোগ্রাম মানসম্পন্ন নয় সেগুলো ঝরে পড়বে।

আসছে জাতীয় টেলিভিশন পুরস্কার
দেশের টেলিভিশন শিল্পে আগ্রহীদের উৎসাহিত করতে জাতীয় টেলিভিশন পুরস্কার আবারও শুরু করার উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন তারানা হালিম।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন,অনেক শিল্পী আছেন যাদের কাছে পুরস্কারের টাকারও চেয়েও বড় বিষয় হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে তার কাজের স্বীকৃতি গ্রহণ করা। এই চিন্তা থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের মতো টেলিভিশনে শ্রেষ্ঠ নাটক, শ্রেষ্ঠ নাট্যকার, শ্রেষ্ঠ অভিনেতার মতো ক্যাটাগরিতে আমরা জাতীয় টেলিভিশন পুরস্কার আবার চালু করছি। অর্থাৎ ২০১৭ সালে টেলিভিশনের জন্য নির্মিত কাজগুলো থেকে শ্রেষ্ঠ কাজগুলোকে ২০১৮ সালে আমরা পুরস্কৃত করবো।

জনপ্রিয় নাটকগুলো পুননির্মাণ
বিটিভির দর্শকপ্রিয় একটি নাটক ছিলো অয়োময়। ১৯৯০ সালে বিটিভিতে প্রচারিত এই নাটকের অন্যতম অভিনয় শিল্পী ছিলেন তারানা হালিম।

বিটিভিতে প্রচারিত সংশপ্তক নাটকের একটি দৃশ্য
তথ্য প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়ে তাই তিনি চান এইসব দিনরাত্রি, সংশপ্তক, বহুব্রীহি’র মতো বিটিভির জনপ্রিয় নাটকগুলো বর্তমান সময়ের দর্শকরা আবার দেখুক, নতুন ভাবে এবং এই সময়ের প্রতিশ্রুতিশীল অভিনয় শিল্পীদের অভিনয়ে।

এখন দেশের ঘরে ঘরে টেলিভিশন সেট, সুদূর এলাকায় পৌঁছে গেছে স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল। এই সময়ে বিটিভির পুনরুজ্জীবনের জন্য বেসরকারি টেলিভিশনগুলোতে বিটিভির নাটক-অনুষ্ঠানের প্রচারণার ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে বলে জানান তারানা হালিম। সংগৃহীত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here