বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন নাবিলা ও জোবাইদুল

[ad_1]

রাজধানীর মহাখালীর একটি কনভেনশন সেন্টারে অভিনেত্রী মাসুমা রহমান নাবিলা ও জোবাইদুল হক দু’জনে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন।

এই উপস্থাপিকা ও অভিনেত্রী গায়ে জড়ানো সোনালি রঙের লেহেঙ্গা ও মাথায় লাল টুকটুকে ওড়না। শরীরে মোড়ানো ভারী অলংকার। জাঁকালো বিয়ের অনুষ্ঠানে এভাবেই বধূ সেজে হাজির হন। এদিকে তার বর জোবাইদুল হক পরেন কালো শেরওয়ানি, মাথায় ছিল লাল পাগড়ি।

দুই পরিবারের সদস্য ও শোবিজ অঙ্গনের অনেকের উপস্থিতিতে বৃহস্পতিবার রাতে তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

নাবিলা-জোবাইদুলকে শুভকামনা জানাতে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, পরিচালক অমিতাভ রেজা চৌধুরী, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, উপস্থাপক আনজাম মাসুদ, অভিনেত্রী বন্যা মির্জা, নাট্যনির্মাতা মাবরুর রশিদ বান্নাহ, অভিনেতা সুমন পাটোয়ারী, কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা, শবনম ফারিয়া, স্বাগতা, সাফা কবির, মারিয়া নূর, স্পর্শীয়া, আশনা হাবিব ভাবনাসহ শোবিজ অঙ্গনের অনেকে।

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার মেয়ে নাবিলার শৈশব কেটেছে সৌদি আরবের জেদ্দায়। ১৮ বছর আগে সেখানেই নেত্রকোনার ছেলে জোবাইদুল হকের সঙ্গে তার পরিচয়। কৈশোরেই পরস্পরের প্রতি ভালোলাগা তৈরি হয়। আর সেই ভালোলাগা এখন বিয়েতে রূপান্তর হলো।

বর-কনের সঙ্গে ফ্রেমবন্দি শবনম ফারিয়া ও শ্রাবণ্য তৌহিদাসহ অন্যরাজেদ্দা থেকে ফিরে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ চুকিয়ে একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত আছেন জোবাইদুল। থাকেন উত্তরায়। বর-কনের সঙ্গে ফ্রেমবন্দি তারকারা২০১৬ সালে অমিতাভ রেজা পরিচালিত ‘আয়নাবাজি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হন নাবিলা।

‘এবং ক্লাসের বাইরে’ অনুষ্ঠান উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে ২০০৬ সালে তার মিডিয়ায় যাত্রা শুরু। সে থেকেই নিজেকে উপস্থাপিকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here