ভারতে গেলেই গ্রেপ্তার হবে নোবেল

বিনোদন ডেস্ক :

0
65

সংগীতশিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেলকে নিয়ে বিতর্ক শেষ হচ্ছে না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিরূপ মন্তব্য ও তার গোপন বিয়ে প্রকাশ্যে আসার পর তুমুল সমালোচিত হচ্ছেন তিনি। সেই সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করায় নোবেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ত্রিপুরার এক যুবক।

এ বিষয়ে জি-নিউজ জানায়, নোবেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন ত্রিপুরার দক্ষিণ জেলার বিলোনিয়া শহরের বাসিন্দা সুমন পাল। গত সোমবার নোবেলের বিরুদ্ধে মামলাকারী যুবক অভিযোগের একটি প্রতিলিপি পাঠান ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ হাইকমিশন ও আগরতলা জেলার পুলিশ সুপারের কাছে। ত্রিপুরার বিলোনিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।

অভিযোগকারী সুমন পাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের জন্য নোবেলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

এদিকে, মামলা দায়েরের পর ত্রিপুরা পুলিশ বলেছে, ভারতে এলেই জিবাংলার ‘সা রে গা মা পা’ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে জনপ্রিয়তা পাওয়া সঙ্গীতশিল্পী নোবেলকে গ্রেপ্তার করা হবে।

এই পরিস্থিতিতে গোপনে তিন নম্বর বিয়ের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, নির্যাতনের অভিযোগও তোলা হয়েছে এই গায়কের বিরুদ্ধে।

সূত্রে খবর, ৭ মাস আগে গোপনে বিয়ে করেছেন তিনি। জি বাংলা, সারেগামাপার সেরা হওয়ার দৌঁড়ে ছিটকে যাওয়ার পর থেকেই অভব্য আচরণ ও মন্তব্য করতে শুরু করেন নোবেল। ফলে ভক্তদের বিরাগভাজন হয়েছেন তিনি। কমতে থাকে অনুরাগীর সংখ্যা। তার মধ্যেই ২০১৯-এর নভেম্বরে রীতিমতো পণ নিয়ে ৩ নম্বর বিয়ের অভিযোগে সরগরম এখন সঙ্গীতাঙ্গন।

জানা গেছে, তাঁর তৃতীয় স্ত্রীয়ের নাম মেহরুবা সালসাবিল। নববধূকে নিয়ম করে মারধরের অভিযোগেও সরব হয়েছেন নোবেলের শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা। এর আগে রিমি নামে একটি মেয়ের সঙ্গে বিয়ে হলেও টেকেনি সেই দাম্পত্য। পরে এক আত্মীয়কে বিয়ে করেন নোবেল। সেই স্ত্রীও নির্যাতনের অভিযোগ এনে দাম্পত্যে বিচ্ছেদ এনেছে। এরপরেই নোবেলের গানের অনুরাগী মেহরুবাকে বিয়ে করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here