Sunday, October 17, 2021
Homeআন্তর্জাতিকভারতে ব্যবসায়ী মোদির ১১ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি!

ভারতে ব্যবসায়ী মোদির ১১ হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি!

[ad_1]

ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম সরকারি ব্যাঙ্ক পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের মুম্বাই শাখায় ১১ হাজার ৩০০ কোটি টাকার জালিয়াতি ধরা পড়েছে।

দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই-এর কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। এ ধরনের বিশাল ব্যাংক জালিয়াতির জন্যে অভিযুক্ত করা হয়েছে হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদিকে। নীরব মোদি, তাঁর স্ত্রী, ভাই, মামার বিরুদ্ধেও অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ জানান হয়েছে নীরব মোদির অলঙ্কার সংস্থার বিরুদ্ধেও।

নিয়ম ভেঙে বিরাট অঙ্কের ঋণের গ্যারান্টি হাতিয়ে নেয় নীরবের সংস্থা ফায়ারস্টার ডায়মন্ড। সেই নথি দেখিয়ে ভারতীয় ব্যাঙ্কের বিদেশের শাখা থেকে ঋণ নেয় সে। টাইমস অব ইন্ডিয়া

যে ১১ হাজার ৩০০ কোটি টাকার ভুয়ো নথি জমা পড়েছে তা ব্যাংকটির মোট পুঁজির প্রায় এক তৃতীয়াংশ। পিএনবি-র কয়েকজন কর্মী নিয়ম ভেঙ্গে নগদ বন্ধক না রেখেই ঋণ গ্যারান্টির এ সুবিধা দেন। পিএনবি’র ১০ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। নীরব মোদির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে ২১টি স্থানে তল্লাশী চলেছে। তার মধ্যে রয়েছে নীরব মোদির আটটি বাড়ি।

নীরব মোদি ২০১১ সালে ঋণ চেয়ে আবেদন করার পর পিএনবি’র ডেপুটি ম্যানেজার গোলকনাথ শেঠি তাকে এধরনের নিয়মবহির্ভুত ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করেন।

পিএনবি’র এ জালিয়াতি ব্যাংকটির গত অর্থবছরের লাভের ৮ গুণ বেশি। ওই বছর ব্যাংকটি লাভ করে ১৩’শ ২৫ কোটি টাকা। একই সঙ্গে এ জালিয়াতি ব্যাংকটির বাজার মুলধনের এক তৃতীয়াংশ। জালিয়াতির ঘটনা জানাজানি হলে পিএনবি’র বাজার সূচক পড়ে যায় ১০ ভাগ। এর আগে ব্যাংকটির ইকুইটিতে ভারত সরকার ৫ হাজার ৪৭৩ কোটি টাকা বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয়।

[ad_2]

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments