মালয়েশিয়ায় ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় নারীসহ ৪ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

যমুনা ডেস্ক :

0
139

মালয়েশিয়ায় ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনায় নারীসহ চার রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত ২৭ মে দেশটির জহর প্রদেশে পুলিশের অভিযানে ধরা পড়ে সাকি-বাকি গ্যাংয়ের ৩০ বছরের এক নারীসহ ওই চার সদস্য। এ সময় প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল ফোনসহ নগদ অর্থ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন মালয়েশিয়ায় অবস্থান করার কারণে তারা রোহিঙ্গা নাকি স্থানীয় নাগরিক- তা শনাক্ত করাটা কঠিন হয়ে পড়েছিল। এরমধ্যেই প্রতিনিয়ত চলছিল তাদের ডাকাতি ও ছিনতাইের কাণ্ড। নাম দিয়েছিল সাকি-বাকি গ্যাং। দুই মাসে ২০ লাখ টাকার বেশি ডাকাতি ও ছিনতাই করে কামিয়েছে এই রোহিঙ্গা গ্যাং। কিন্তু কথায় আছে, চোরের দশ দিন গৃহস্তের একদিন! পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে আর চলা হলো না সাকি-বাকি গ্যাং-এর।

গত বুধবার মালয়েশিয়ার জহর প্রদেশে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয় সাকি-বাকি গ্যাংয়ের ৩০ বছরের এক নারীসহ চার সদস্যকে। এ সময় উদ্ধার করা হয় প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, স্বর্ণালঙ্কার, মোবাইল ফোনসহ নগদ অর্থ।

জহর প্রদেশের কুলাই থানার ওসি তোক বিন ইয়াও বলেন, দুটি পৃথক অভিযানে সাকি-বাকি গ্যাংয়ের রাহমান, হাছান ও ভাইয়াসহ অপর একজন নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে পুরুষদের বয়স আনুমানিক ২৭ বছর। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে ১৫টি বাড়িতে ডাকাতিসহ জহর বারু ও কুলাই এলাকায় চুরি ও ছিনতাইয়ের মামলাও রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃত রোহিঙ্গারা দুটি গ্যাংয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে তাদেরকে সে দেশের আইনের ৪৫৭ ধারায় সাত দিনের রিমাণ্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here