যেভাবে কাটছে অপু বিশ্বাসের দিনকাল

[ad_1]

অপুর পাঁচালী, না সত্যজিতের ছবির কথা বলছি না। গল্পটা বাংলা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসের। হঠাৎ আড়াল হওয়া, পরে স্বামী-সন্তান নিয়ে ফেরা। শেষমেষ জল গড়িয়ে ডির্ভোস। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বড় পর্দায় সরব থাকা এই অভিনেত্রী এখন অনেকটাই নিরব।

কেমন কাটছে তার দিন ? সুখে আছেন কি নতুন জীবনে ? এমন নানা প্রশ্নের উত্তরের মুখোমুখি ঢাকাই সিনেমার এই নায়িকা। যে নায়িকার জীবনের গল্পগুলো হার মানায় সিনেমার চিত্রনাট্যকে বিশ্বাসের ভেলায় চেপে রঙিন পর্দায় অপার আনন্দে পথ চলা সেই চিত্রনায়িকা আর কেউ নন, তিনি অপু বিশ্বাস।

এক সময় চলচ্চিত্রে কাজের চাপ এতটাই বেশি ছিল যে অন্য কিছু করার সুযোগই পেতেন না। এখন ঠিক তার উল্টোটা। মুটিয়ে যাওয়া শরীরের ফিটনেস ফেরাতে না ফেরাতে আবার বিচ্ছেদ। সব মিলিয়ে সময়টা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না অপু বিশ্বাসের। যদিও কিছুদিন আগে কয়েকটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন, তবে সেগুলোর কাজ শুরু হয়নি এখনো। আবার কবে নাগাদ শুরু হবে, সেটাও নিশ্চিত নয়।

তবে বসে নেই অপু বিশ্বাস। নিয়মিত বিভিন্ন স্টেজ শো’তে অংশ নিচ্ছেন তিনি। গত দু’তিন মাসে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বেশ কিছু অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন নায়িকা। এর মধ্যে রাজধানীর বনানীতে মডেল-অভিনেত্রী সুজানার ফ্যাশন হাউজ উদ্বোধন, ওয়েস্টিন হোটেলে লিঙ্কআস এবং অপোর জাঁকজমকপূর্ণ বৈশাখী উৎসব (যেখানে বাংলা বছরের প্রথম দিনটি অপু বিশ্বাসসহ নাচে ও গানে গুণগ্রাহীদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিয়েছিল লিঙ্কআস ফ্যামিলি), ‘সেরা আমি সঙ্গে মা সিজন-৪’-এর গ্র্যান্ড ফিনালেতে নাচ, নরসিংদীর ড্রিম হলিডে পার্কে শিল্পী সমিতির কনসার্টে নাচ ও জাতীয় পাট দিবসে নাচ উল্লেখযোগ্য।

সর্বশেষ জয়পুরহাটের ঐতিহ্যবাহী ‘জামাই মেলা’য় অংশ নেন। যেখানে প্রায় ১৬ হাজার জামাইয়ের প্রতীকী শ্বশুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আ ন ম শওকত হাবিব তালুকদার লজিকের সঙ্গে স্টেজে নাচ-গান পরিবেশন করেন অপু। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে।

মূলত এভাবেই দিন কাটছে অপুর। যদিও তার ভক্তরা খুব দ্রুত তাকে আবারও রুপালি পর্দায় দেখার জন্য মুখিয়ে আছেন। তাদের দাবি, প্রতিভাসম্পন্ন এই অভিনেত্রী সহজেই হারিয়ে যাওয়ার নন, তিনি আবারও স্বরূপে ভক্তদের সামনে হাজির হবেন। তাদের মতে, মুটিয়ে যাওয়া শরীরের ফিটনেসটা পুরোপুরি ফিরে পেলেই চলচ্চিত্রের কাজে হাত দিবেন তিনি।

অবন্তি বিশ্বাস অপু, মূলত অপু বিশ্বাস নামেই পরিচিত। তিনি ২০০৫ সালে আমজাদ হোসেনের কাল সকালে ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন। তবে ২০০৬ সালে এফআই মানিক পরিচালিত কোটি টাকার কাবিন ছবিতে প্রধান নায়িকা হয়ে অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে।

২০০৬-২০১৫ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ এক দশক ঢাকাই ছবির সবচেয়ে ব্যস্ত নায়িকা ছিলেন অপু। এ সময়ে শাকিব খানের সঙ্গে ৭০টিরও বেশি সিনেমায় অভিনয় করে আকাশছোঁয়া সাফল্য পান তিনি। একসঙ্গে কাজের সুবাদে তারা ভালোবেসে বিয়েও করেন। ২০০৮ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেও ক্যারিয়ারের খাতিরে সেটা প্রকাশ্যে আনেননি এ তারকা জুটি। গত বছরের শুরুর দিকে বিয়ে ও সন্তানের কথা প্রকাশ্যে আনেন অপু। এরপর থেকেই শাকিব-অপুর সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হতে থাকে এবং সর্বশেষ তারা ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন। কিছু দিন আগেই তাদের ডিভোর্স কার্যকর হয়েছে।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here