শাস্তি ও জেলে থাকা নিয়ে মুখ খুললেন সালমান খান

[ad_1]

কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় যোধপুর আদালত বলিউড সুপারস্টার সলমন খানকে পাঁচ বছরের সাজা দিয়েছেন। সেই মামলায় জামিনের আবেদন করে আপাতত জামিনে মুক্ত বলিউড সুপারস্টার। শনিবার জামিন পেয়ে সোজা উড়ে গেছেন মুম্বই। তবে সাজা পাওয়ার পরে জামিনের আগে দুই রাত জেলবন্দি থাকতে হয়েছে ভাইজানকে। তা নিয়ে মুখ খুলেছেন সালমান।

যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে রাত কাটানোর পর জামিন পেয়ে বেরিয়ে এসে মুখ খুলেছেন সালমান খান। দুই রাত জেলে কাটানো সালমান টুইট করে ভক্তদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এত ভালোবাসা ও সমর্থনে তিনি ধন্য বলে টুইটে ব্যাখ্যা করেছেন সালমান খান।

জামিন পেয়ে বাড়ি ফিরে সালমান টুইটারে লেখেন, অসংখ্য ধন্যবাদ। আমার সমস্ত প্রিয়জনকে। যাঁরা আমার পাশে ছিলেন ও এত দুঃসময়েও আশা হারাননি। পাশে থাকার ও ভালোবাসার জন্য আমার তরফ থেকে ধন্যবাদ। সবাইকে ঈশ্বর যেন আশীর্বাদ করেন। পাঁচ বছরের সাজা পেয়েছেন সালমান। সেই রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে আদালতে জামিনের আবেদন জানানো হলে তা মঞ্জুর করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে যোধপুর জেল থেকে ছাড়া পেয়ে সালমান মুম্বই রওনা দেন। আপাতত দেশের বাইরে যেতে পারবেন না তিনি। আগামী ৭ মে আদালতে সশরীরে হাজিরা দিতে হবে।

উল্লেখ্য, কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় গত বৃহস্পতিবার সালমান খানকে পাঁচ বছরের সাজা শোনানো হয়। এই ঘটনায় সালমান ছাড়াও সঈফ আলি খান, তাব্বু, নীলম, সোনালি বেন্দ্রে অভিযুক্তের তালিকায় থাকলেও তাদের প্রমাণের অভাবে বেকসুর খালাস করা হয়। পরে সালমানকে সাজা শোনানো হয়।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here