শ্রীদেবীর মৃত্যু সম্পর্কে স্বামী বনি কাপুরের চমকপ্রদ তথ্য

[ad_1]

কিংবদন্তী অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যু একটি অপূরণীয় ক্ষতি বলিউড সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জন্য। মাত্র ৫৪ বছর বয়সে তার অকাল মৃত্যু মেনে নেওয়া কষ্টকর ভক্ত, আত্মীয় কিংবা অন্যান্য তারকাদের জন্য। কিন্তু জীবনের নির্মম সত্যের মধ্যে একটি- মৃত্যু অবধারিত। হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছে শনিবার। এদিকে অভিনেত্রীর মৃত্যু সম্পর্কে একটি চমকপ্রদ তথ্য দিলেন শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুর।

গত শনিবার ভোররাতে নায়িকার মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পর থেকে শ্রীদেবীর পরিবার-সহকর্মী-অনুরাগী সকলেই স্তম্ভিত। বনি কাপুরের ভাইয়ের ছেলে মোহিত মারওয়ারের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দুবাইয়ে গিয়েছিলেন শ্রীদেবী-বনি কাপুর ও তাদের ছোট মেয়ে খুশি। বড় মেয়ে জাহ্নবী বাদে দুবাইতেই ছিল গোটা কাপুর পরিবার। জানা গিয়েছিলো, বিয়ে বাড়িতে থেকেই হঠাৎ অসুস্থ বোধ করার পর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় নায়িকার। কিন্তু বনি কাপুর দিলেন নতুন তথ্য।

সোমবার সকালে নতুন করে জানা গিয়েছে, মৃত্যুর আগে জুমেইরাহ এমিরেটস টাওয়ারের হোটেল রুমে একাই ছিলেন শ্রীদেবী। দুবাইয়ে বিয়ের অনু্ষ্ঠান শেষে শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুর ও তার ভাই সঞ্জয় কাপুর দেশে ফিরে আসেন। ছোট মেয়ে খুশি ও শ্রীদেবী সেখানেই ছিলেন। সংবাদপত্র খালিজ টাইমসের খবর অনুযায়ী, একটি পেইন্টিং প্রদর্শনীর জন্য দুবাইতে থেকে গিয়েছিলেন শ্রীদেবী।

কিন্তু স্ত্রীকে সারপ্রাইজ দিতে আবারও দুবাই যান বনি। স্ত্রীর জন্য ডিনার প্ল্যান করেছিলেন তিনি। বিকেল সাড়ে পাঁচটায় তিনি শ্রীদেবীর ঘরে যান। স্বামীর সঙ্গে বেরোনোর জন্য রেডি হতে ওয়াশরুমে যান শ্রীদেবী। বনি কাপুর জানালেন, ওয়াশরুমেই মারা যান তার স্ত্রী। এই খবরটি সামনে এনেছে দুবাইয়ের সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস।

প্রায় ১৫ মিনিট কেটে গেলেও বাথরুম থেকে শ্রীদেবীকে বের হতে না দেখে সন্দেহ হয় বনির। বাথরুমের দরজায় বেশ কয়েকবার ধাক্কা দেন। কোনও সাড়া না পেয়ে দরজা ভেঙে বাথরুমে ঢোকেন তিনি। পানি ভর্তি বাথটবে পড়ে থাকতে দেখেন শ্রীদেবীকে। অনেক ডাকাডাকিতেও কোনও সাড়া দেননি শ্রী। এরপরই এক বন্ধুকে ফোন করেন বনি। খবর দেওয়া হয় পুলিশকেও। ততক্ষণে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। অভিনেত্রীকে হাসপাতালে (রশিদ হসপিটাল) নিয়ে যাওয়ার আগেই মৃত্যু হয়েছে বলে জানান চিকিৎসকরা।

রোববারই ফরেন্সিক পরীক্ষার জন্য শ্রীদেবীর দেহ পাঠানো হয়। রাতে তার দেহ থেকে রক্তের নমুনা পরীক্ষা হয়। সমস্ত রিপোর্ট পাওয়ার পরেই দেহ মুম্বাই ফিরিয়ে নিয়েও যাওয়ার অনুমতি পাওয়া যাবে। ডেথ সার্টিফিকেট ইস্যু হওয়ার পর প্রাইভেট জেটে মুম্বাই আসবে শ্রীদেবীর দেহ। অনিল আম্বানীর চার্টার্ড বিমানে নিয়ে আসা হবে প্রয়াত অভিনেত্রীর মরদেহ। আজ মুম্বাই ফিরলে আজই শেষকৃত্য অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে শ্রীদেবীর। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here