সোমালিয়ায় গাড়িবোমা হামলা ও সংঘর্ষে নিহত ২৭

[ad_1]

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিশুতে দুটি গাড়িবোমা হামলা ও বন্দুকযুদ্ধে অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছে। শুক্রবারের এ ঘটনায় আরও ২০ আহত হয়েছে। সশস্ত্র জঙ্গি গোষ্ঠী আল শাবাব এ হামলার দায় স্বীকার করেছে।

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে আল জাজিরা জানিয়েছে, শুক্রবার সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসুতে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের কাছে এক চেকপোস্টে প্রথম গাড়িবোমাটি বিস্ফোরিত হয়। দিনের দ্বিতীয় বোমা হামলাটি চালানো হয় প্রেসিডেন্টের বাসভবনের সামনে। এ সময় সেখানে চেক পয়েন্টে নিরাপত্তা রক্ষীদের সঙ্গে জঙ্গিদের সংঘর্ষ হয়। এতে ওই জঙ্গি গোষ্ঠীর পাঁচ সদস্য নিহত হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

এর কিছুক্ষণ পর প্রাসাদের একটু দূরে একটি হোটেলের সামনে রাখা গাড়িতে দ্বিতীয় গাড়িবোমার বিস্ফোরণ ঘটে। হামলায় সরকারি বাহিনীর ১৫ সদস্য নিহত হয়েছে বলে আল শাবাব দাবি করেছে।

পুলিশ কর্মকর্তা মেজর মোহাম্মদ আহমেদ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, তারা প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের কাছে একটি এবং জনপ্রিয় একটি হোটেলের খুব কাছে দ্বিতীয় আরেকটি বিস্ফোরণের খবর জানতে পেরেছেন।

এদিকে আল শাবাবের মুখপাত্র আবদিয়াসিস আবু মুসাব দাবি করেছেন, তাদের গাড়ি বোমার লক্ষ্য ছিল প্রেসিডেন্টের বাসভবনের আশপাশ ও বাসভবন সংশ্লিষ্ট নিরাপত্তা বাহিনীর ঘাঁটি হাবার কাদিজা। হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়দার সঙ্গে যুক্ত আল শাবাব সোমালিয়ার সরকার উচ্ছেদ করে সেখানে শরিয়া শাসন চালুর জন্য একের পর এক এ ধরনের হামলা করছে। প্রায় দশ বছর ধরে এসব হামলায় নিহতের সংখ্যা কয়েক হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

গত বছরের অক্টোবরে মোগদিশুতে জোড়া গাড়ি বোমা হামলায় পাঁচশরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছিল। শুক্রবারের হামলার সঙ্গে জড়িত পাঁচ জঙ্গিকে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা হত্যা করেছে বলে দাবি করলেও আল শাবাব তা উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, প্রেসিডেন্ট বাসভবনের কাছে হামলায় জড়িত সদস্যদের অনেকেই বহাল তবিয়তে রয়েছে। সূত্র: আল জাজিরা

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here