স্টার সিনেতে ‘দ্য রক’

[ad_1]

হলিউডের সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের কাছে ডোয়াইন জনসন এক আকর্ষণীয় নাম। একসময়ের রেসলিংয়ের জনপ্রিয় ‘দ্য রক’ এখন সিনেমাজগতেও আলোচিত তারকা। রেসলিংয়ের মতো সিনেমায়ও বাজিমাত করেছেন তিনি।

২০০১ সালে ‘দ্য মাম্মি রিটার্নস’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে হলিউডে যাত্রা শুরু করেন ডোয়াইন জনসন। প্রথম ছবিতেই দর্শকদের দারুণ সাড়া পান। এরপর প্রায় অর্ধশতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। যার মধ্যে ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ সিরিজসহ বেশ কয়েকটি ছবি বক্স অফিসে সাফল্য পেয়েছে। এ যাবৎ সিনেমা থেকে প্রায় ৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পারিশ্রমিক নিয়েছেন।

২০০২ সালে ‘দ্য স্করপিয়ান কিং’ ছবিতে সাড়ে পাঁচ মিলিয়ন ডলার পারিশ্রমিক নিয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন। ২০১৬ সালে হলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেতা ছিলেন ডোয়াইন জনসন। সব মিলিয়ে দিনে দিনে হলিউডে তার সাফল্যের পারদ ওপরের দিকে উঠছে। বাড়ছে ছবির সংখ্যাও।

গেল ডিসেম্বরে (২০১৭ সাল) বড়দিন উপলক্ষে মুক্তি পায় ফ্যান্টাসি অ্যাডভেঞ্চার ছবি ‘জুমানজি : ওয়েলকাম টু দ্য জঙ্গল’। ‘জুমানজি’ সিরিজের নতুন এ ছবিটি বেশ ভালো সাড়া অর্জন করে দর্শকদের। প্রায় ৯৫০ মিলিয়ন ডলার আয় করে ছবিটি।

এই সাফল্যের রেশ কাটতে না কাটতেই দরজায় কড়া নাড়ছে তার আরেকটি ছবি। এ ছবির নাম ‘র‌্যামপেজ’। বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনিনির্ভর এ ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে ১৩ এপ্রিল। আন্তর্জাতিক মুক্তির দিনেই ছবিটি মুক্তি দিচ্ছে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্স। ব্র্যাড পেটন পরিচালিত এ ছবির প্রধান চরিত্রে থাকছেন ডোয়াইন জনসন। তার সঙ্গে আরও রয়েছেন নাওমি হ্যারিস, মার্লে শেলটন, জেফ্রি ডিন মরগ্যান, জেইক লেসি প্রমুখ।

বিধ্বংসী এক দানব গরিলাকে ঘিরে ‘র‌্যামপেজ’ সিনেমার কাহিনি। প্রিমাটোলজিস্ট ডেভিস ওকোয়ে জন্মের পর থেকে গরিলাটিকে লালন-পালন করেন। একবার তার ওপর একটি পরীক্ষা চালানোর পর সে রূপান্তরিত হয় বিশালাকার ভয়ানক এক দানবে। ক্রমান্বয়ে সে তার ধ্বংসলীলা চালিয়ে যায়। একের পর এক শহর, স্থাপনা ধ্বংস করতে থাকে। ওকোয়ের টিম নানা রকম চেষ্টা চালায় তাকে নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য। কিন্তু কোনো কিছুতেই আটকানো যায় না তাকে। শুরু হয় তার হাত থেকে পৃথিবীকে রক্ষার ভয়ঙ্কর এক লড়াই। শেষ পর্যন্ত কে জিতবে এ লড়াইয়ে? এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here