স্থায়ীভাবে ১০০ সিনেমা হলে ডিজিটাল মেশিন বসাবেন সেলিম খান

0
1232

[ad_1]

দেশের ১০০টি হলে স্থায়ীভাবে ডিজিটাল মেশিন বসাবেন বলে জানিয়েছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক সেলিম খান। তিনি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার।

সেলিম খান বলেন, শাপলা মিডিয়ার পক্ষ থেকে আমি প্রাথমিকভাবে ১০০ সিনেমা হলে ডিজিটাল মেশিন দেব। ভারতের একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে আলোচনা চূড়ান্ত করেছি। সঙ্গত কারণে নাম বলতে চাইনা এখন। ক’দিন পরে সবাই জানতে পারবে। আমাদের প্রোডাকশন হাউজের প্রথম ছবি ‘আমি নেতা হবো’ মুক্তির পরেই এই কার্যক্রম শুরু করবো। তথ্যমন্ত্রী, মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয়, এফডিসির চলচ্চিত্রের বিভিন্ন সংগঠন পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতির নেতা ও সদস্যদের সহযোগিতায় এই কার্যক্রম করবো।

শিল্পী, প্রযোজক ও পরিচালকেরা লাভবান হবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশেষ করে প্রযোজকরা বাঁচবে। আর প্রযোজক বাঁচলে, বেশি বেশি ছবি নির্মাণ হবে। এটা সরকারিভাবে নয়, সম্পূর্ণ ব্যক্তিগতভাবে এই মেশিন দেব।

সেলিম খান আরো বলেন, অন্য প্রতিষ্ঠান সিনেমা হলে মেশিন বসিয়ে যে ভাড়া নিচ্ছে, আমি তাদের চেয়ে ৪০ পার্সেন্ট কম মূল্যে ভাড়া নেব।

এই প্রযোজক বলেন, আমি একজন প্রযোজক হিসেবে বুঝেছি আমার ছবি রিলিজের আগে বিভিন্ন বুকিং এজেন্ট, হল মালিকদের বিভিন্ন ধরণের কথাবার্তা বলা হচ্ছে। আমার কাছে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। ছবি মুক্তির আগে আমি কারো কাছে জিম্মি থাকতে চাইনা। সেজন্য আমি নিজ উদ্যোগে হলে মেশিন বসাতে চাই। তার আগে হল মালিকদের সাথেও বসে আলোচনা করবো।

শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খানের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান। তিনি বলেন, সেলিম ভাই যদি সিনেমা হলে ডিজিটাল মেশিন দেন তবে আমাদের ইন্ডাস্ট্রির লাভ হবে। আর ইন্ডাস্ট্রির লাভ হলে শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজক ভালো থাকবে। সেলিম ভাইকে সেলুট জানাই। ন্যায়ের পথে থেকে কাজ করলে শিল্পী সমিতি তার সাথেই থাকবে।

উল্লেখ্য, শাপলা মিডিয়ার প্রথম ছবি ‘আমি নেতা হবো’ মুক্তি পেতে যাচ্ছে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি। এরপর চিটাগাংইয়া পোয়া নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ছবিও রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। এছাড়া নির্মাণের অপেক্ষায় রয়েছে মামলা হালমা ঝামেলা, কেউ কথা রাখেনা, বয়ফ্রেন্ড ইত্যাদি ছবিগুলো। সবগুলো ছবির নায়ক ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান।

[ad_2]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here